বীরগঞ্জ নিউজ ২৪ ডেস্কঃ

থাপ্পড় দেওয়ায় স্বামীর ওপর অভিমান করে লাকী বেগম (১৮) নামে এক গৃহবধূ আত্মহত্যা করেছেন। স্বামীর কাছ থেকে হেডফোন কেড়ে নেওয়ায় স্ত্রীকে থাপ্পড় দেয় বলে জানা যায়।

গতকাল সোমবার রাতে এমন ঘটনা ঘটেছে নাটোরের গুরুদাসপুর উপজেলার একটি গ্রামে। নিহত লাকী উপজেলার নাজিরপুর ইউনিয়নের মামুতপুর গ্রামের মো. শাকিলের স্ত্রী।

স্থানীয়দের সঙ্গে কথা বলে জানা যায়, গত পাঁচ মাস আগে মামুতপুর গ্রামের মো. হানিফ মোল্লার মেয়ে লাকী ও একই এলাকার মো. মজিদ গাইনের ছেলে শাকিল গাইন বিবাহবন্ধনে আবদ্ধ হন। বিয়ের পর থেকে তারা ঝামেলাহীন ভাবেই সংসার করছিলেন। তাদের সংসারে কখনও কোনো ঝগড়া বিবাদ দেখা যায়নি। এমনকি শ্বশুরবাড়ির সকলের সঙ্গে লাকীর ভালো সম্পর্ক ছিল।

নিহতের স্বামী শাকিল জানান, প্রতিদিনের মত গতকাল সোমবার রাতেও তারা গল্প,হাঁসি-ঠাট্টা করছিলেন। এক পর্যায়ে তিনি হেডফোন গান শুনতে লাগলে লাকী তোর কাছ থেকে হেডফোনটি কেড়ে নেন। এতে উত্তেজিত হয়ে কিছু না বুঝেই তিনি তার স্ত্রীকে একটি থাপ্পড় দেন। পরে লাকী তার উপর অভিমান করে ঘুমিয়ে পড়ে।

শাকিল বলেন, ‘সেহরীর সময় আমার মা লাকীকে ডাকতে আসে। তার কোনো সাড়াশব্দ না পেয়ে আমি ঘুম থেকে উঠে ঘরের লাইট জ্বালিয়ে দেখতে পাই আড়ার সঙ্গে গলায় ফাঁস লাগিয়ে ঝুলে আছে সে। পরে আমি তাকে সেখান থেকে নামিয়ে আনি । কিন্তু ততক্ষণে লাকী আর বেঁচে নেই।’

এদিকে লাকীর মৃত্যু আত্মহত্যা নাকি হত্যা তা তদন্ত করে দেখছে গুরুদাসপুর থানা পুলিশ। থানার ভারপ্রাপ্ত কর্মকর্তা (ওসি) মো. সেলিম রেজা আমাদের সময়কে বলেন, ‘মরদেহ উদ্ধার করে নাটোর মর্গে পাঠানো হয়েছে। এ ব্যাপারে থানায় অপমৃত্যু মামলা হয়েছে। এটি হত্যা নাকি আত্মহত্যা তারও তদন্ত করা হচ্ছে।’

Facebook Comments

You may also like

এমপি প্রার্থী নিজেই করছেন মাইকিং সঙ্গী অটো চালক!

বিশেষ সংবাদদাতাঃ  আসন্ন একাদশ জাতীয় সংসদ নির্বাচনে কুড়িগ্রাম-১