বীরগঞ্জ নিউজ ২৪ ডেস্কঃ

ইউরোপীয় ইউনিয়নের সীমানা আইন লঙ্ঘন করে অবাধে বিচরণ করায় একটি গর্ভবতী গাভীকে মৃত্যুদণ্ড দেয়া হয়েছে। তিন মাস পরেই সন্তানের জন্ম দেয়ার কথা ছিল পেনকা নামের সেই গাভীর।

বুলগেরিয়ার গ্রাম কোপিলোভটসিতে নিজের আবাসস্থল ছেড়ে সে সার্বিয়ার সীমানায় ঢুকে পড়েছিল আর সার্বিয়া ইউরোপীয় ইউনিয়নভূক্ত দেশ নয়। সেখানেই বেঁধেছে বিপত্তি।

গরুটি মালিক ইভান হারালামপিয়েভের কাছে ফিরে আসলেও সে রেহাই পাইনি। তার স্বাস্থ্যও ভালো ছিল। বুলগেরিয়ার কর্মকর্তারা জানিয়েছেন, ইউরোপীয় ইউনিয়নের প্রণীত আইন লঙ্ঘন করার শাস্তি গরুটিকে পেতেই হত।

পশু চিকিৎসক লিউবোমির লিউবোমিরভ বলেন, ‘আমরা সিদ্ধান্ত নেয়ার কেউ নই। ব্রাসেলস (ইইউর সদর দফতর) এর প্রণীত আইন আমরা বাস্তবায়ন করি।’

পেনকার মৃত্যুদণ্ড নিয়ে বিতর্ক তৈরি হয়েছে। ইইউ প্রণীত এ ধরনের অদ্ভুত আইন পরিবর্তনে একটি পিটিশনও আহ্বান করা হয়েছে। এ পর্যন্ত পিটিশনের প্রতি সমর্থন জানিয়েছেন ৮ হাজার ব্যক্তি। সূত্র: ইন্ডিপেনডেন্ট

Facebook Comments

You may also like

এমপি প্রার্থী নিজেই করছেন মাইকিং সঙ্গী অটো চালক!

বিশেষ সংবাদদাতাঃ  আসন্ন একাদশ জাতীয় সংসদ নির্বাচনে কুড়িগ্রাম-১