বিজ্ঞপ্তিঃ 

ভ্যানচালক বাবা ও গার্মেন্টস কর্মী মায়ের শিশুসন্তান সাকিবের কিডনি দুটি নষ্টের দিকে। অথচ মেধাবী এই শিক্ষার্থী কিছুদিন আগেও সমাপনী মডেল টেস্টে ‘এ গ্রেড’ রেজাল্ট করেছে। সাকিব দিনাজপুরের বীরগঞ্জ উপজেলার ঝাড়বাড়ী বলদিয়াপাড়া স্কুলের শিক্ষার্থী, একই পাড়ায় তার বাড়ি।

দিনাজপুরের এম আব্দুর রহিম মেডিকেল কলেজ হাসপাতালে চিকিৎসাধীন। সাকিবের বাবা মা চায় তাদের সন্তান যেন সুস্থ্য স্বাভাবিক জীবনে ফিরে আসে। এমনকি ছোট্ট সাকিবও জীবনের গুরুত্ব যেন বুঝে ফেলেছে, সে নিজেও সকল বিত্তবান মানুষের কাছে বাঁচার আকুতি জানিয়েছে এভাবে- “আমি সমাপনী পরীক্ষা দিয়ে লেখাপড়া করতে চাই, প্লিজ আমাকে সাহায্য করে সুস্থ করুন। আমি স্কুলে যেতে চাই।”

শিশুদের চিকিৎসা করালে সুস্থ্য হয়। তাই সম্মিলিতভাবে কিছু কিছু সাহায্য করে যদি সাকিব সুস্থ্য হয়ে ওঠে, তবে আমি আপনি উপরওয়ালা কাছে এর জন্য উত্তম প্রতিদান পাবো ইনশাআল্লাহ।

সাকিবের চিকিৎসার জন্য উপস্থিত আনুমানিক অর্ধলক্ষ টাকার প্রয়োজন। সময়ের প্রেক্ষিতে অনেক বড় কোন অংক নয়, তবে সাকিবের পরিবারের জন্য পাহাড়সমান। সাকিবের সুস্থতার জন্য আপনার সামান্য সাহায্য ওকে বাঁচাতে পারে, তাই হাত না বাড়িয়ে এড়িয়ে যাবেন না। জানি আপনি শিশুটির পাশে দাঁড়াবেন আর আল্লাহ আপনাদের মঙ্গল করবেন।

সাকিবকে কেউ সাহায্য পাঠাতে চাইলে বিকাশ করুন এই নম্বরে- ০১৭১৭৮৭৮৯৫৭ (সাকিবের ভাই শামিম)
আরো কোন তথ্যের প্রয়োজনে- ০১৭১৮৯১১১০৪ (মতিউল স্যার)

Facebook Comments

You may also like

এমপি প্রার্থী নিজেই করছেন মাইকিং সঙ্গী অটো চালক!

বিশেষ সংবাদদাতাঃ  আসন্ন একাদশ জাতীয় সংসদ নির্বাচনে কুড়িগ্রাম-১