ডিসেম্বরের প্রায় মাঝামাঝি সময় চলছে। রাজধানী ঢাকায় তেমন শীত না পড়লেও দেশের অন্যান্য অংশে জাঁকিয়ে বসেছে শীত। অনেকে মনে করেন, শীত এলো, তো গেলো ফ্যাশনের দিন। কিন্তু আসলে ঘটনা ঠিক উলটো। বরং নিত্য নতুন শীতের পোশাকে নিজেকে দেখাতে পারেন আরও আকর্ষণীয়।

অনেকে মনে করেন, ফ্যাশনেবল পোশাক পরলেও ওপরে চড়াতে হবে গরম জামাকাপড়। বিয়েবাড়িতে সুন্দর একটা ডিজাইনার শাড়ি পরার পর কিন্তু শালটা জড়াতেই মাটি হয়ে যায় আপনার সাজ। আবার ঠাণ্ডা থেকে বাঁচতে শালটা না নিলেও নয়। তাই শীতে ফ্যাশন আর শাল দু’টো একসঙ্গে রাখতে ট্রাই করুন অন্যকিছু। একঘেয়ে ধাঁচে শাল না জড়িয়ে পোশাক অনুযায়ী বদলে ফেলুন স্টাইল। জানিয়ে দিচ্ছি কি করে আপনার বোরিং শালটিকে চমৎকার ভাবে ব্যবহার করতে পারেন ফ্যাশনে।

১. শাল ব্যবহার করতে পারেন শ্রাগের মতো করে। এর জন্য লাগবে শুধু একটা ইলাস্টিক ব্যান্ড। পিঠের উপর ছড়িয়ে রাখুন শাল। শেষের দুই প্রান্ত এক জায়গায় এনে ওই ইলাস্টিক ব্যান্ডের ভিতর দিয়ে টেনে নিন। শালের পিছনে ব্যান্ডটা এমনভাবে ঢেকে ফেলুন যাতে শালের পিছনের অংশ দূর থেকে দেখে মনে হয় হুডের মতো। এইভাবে শাল জড়ালে তা শ্রাগের মতো দেখাবে।

২. ঘাড়ের উপর ছড়িয়ে রাখুন শালটা। তারপর একপ্রান্ত নিয়ে সেটা পাকিয়ে এক কাঁধের ওপর রাখুন। যে লম্বা প্রান্ত নিচে ঝুলছে তা নেকলাইনের ওপর দিয়ে জড়িয়ে নিন। এতে আপনার শাল স্টাইলিশ দেখাবে।

৩. শোলডার টুইস্ট করে গায়ে চাপাতে পারেন শাল। নেকলাইন দিয়ে স্টোলের মতো পাকিয়ে নিন শালটি। দু’দিকে ঝুলে থাকবে শালের দু’প্রান্ত। একটু নিচের দিকে প্রান্তদুটিকে টেনে নিন। এতে আপনাকে স্টাইলিশ দেখাবে।

৪. আপনার শাল প্রথমে অর্ধেক করে ভাঁজ করুন। এবার কোনাকুনি দুটো শেষপ্রান্ত ধরুন। গলায় আলগা করে জড়িয়ে একপাশে বেঁধে নিন। শাল ঠান্ডায় আপনার গলা ঢাকবে। আবার ফ্যাশনেবলও দেখাবে।

৫.শাল গায়ে এমন ভাবে জড়ান যাতে তা গলার মধ্যে টাইট না হয়ে যায়। এরপর শালের দু’প্রান্ত এক কাঁধের কাছে জড়ো করে কোনও ফ্যাশনেবল ব্রোচ দিয়ে আটকে নিন। যে কোন পার্টিতে এমন সাজে যেতে পারেন।

৬. ছুটির দিনে বেড়াতে যাওয়ার জন্য নিন ল্যাজুয়াল লুক। সেক্ষেত্রে জিনসের সঙ্গে আলগা করে জড়িয়ে নিন এক রঙা শাল।

সূত্র: priyo.com

Facebook Comments

You may also like

বীরগঞ্জে ইট ভাটা মালিকের তান্ডবে নারীসহ ৭ জন হাসপাতালে

আবাদি জমির মাটি কেটে ইট ভাটায় নিয়ে যাওয়ার