চলমান শৈত্যপ্রবাহে শীতার্ত মানুষের মাঝে কম্বল ও শুকনো খাবার পাঠিয়ে সেগুলো সঠিকভাবে বিতরণ নিশ্চিত করতে মন্ত্রণালয়, অধিদফতর এবং জেলায় জেলায় কন্ট্রোল রুম খোলা হয়েছে। এসব কন্ট্রোল রুম ২৪ ঘণ্টা খোলা থাকবে।

মঙ্গলবার সচিবালয়ে মন্ত্রণালয়ের সভা কক্ষে আয়োজিত এক সংবাদ সম্মেলনে এ কথা জানান দুর্যোগ ব্যবস্থাপনা ও ত্রাণমন্ত্রী মোফাজ্জল হোসেন চৌধুরী মায়া বীর বিক্রম।

এছাড়া সরকারের বরাদ্দকৃত কম্বল এবং শুকনো খাবার সুষ্ঠুভাবে বন্টনের জন্য ২০ জেলায় ২০ জন কর্মকর্তাকে দায়িত্ব দিয়েছে দুর্যোগ ব্যবস্থাপনা ও ত্রাণ মন্ত্রণালয়।

মন্ত্রী জানান, মন্ত্রণালয়ের পক্ষ থেকে ১০ লাখ ১১ হাজার ৯শ এবং প্রধানমন্ত্রীর কার্যালয় থেকে ১৮ লাখসহ সর্বমোট ২৮ লাখ ১০ হাজার কম্বল বিতরণ করা হয়েছে। এছাড়া শীতার্ত মানুষের জন্য ৮০ হাজার প্যাকেট শুকনো খাবার সরবরাহ করা হয়েছে।

মোফাজ্জল হোসেন চৌধুরী মায়া বলেন, প্রধানমন্ত্রী শেখ হাসিনা নির্দেশ দিয়েছেন, শৈত্যপ্রবাহে শীতবস্ত্রের জন্য কেউ যেনো কষ্ট না পায়। সে কারণে প্রধানমন্ত্রী এবং মন্ত্রণালয়ের পক্ষ থেকে আগাম প্রস্তুতি ছিল।

মন্ত্রী বলেন, মন্ত্রণালয় ও অধিদফতর এবং জেলায় জেলায় কন্ট্রোল রুম ২৪ ঘণ্টা খোলা থাকবে। যে জেলা থেকে যে ধরনের খবর আসবে আমরা প্রধানমন্ত্রীর নির্দেশনা অক্ষরে অক্ষরে পালন করবো। মানুষ যেনো শীতে কষ্ট না পায়, সে জন্য যা যা করা দরকার সরকার ও মন্ত্রণালয়ের পক্ষ থেকে করবো।

ত্রাণমন্ত্রী আরো জানান, মন্ত্রণালয়ের অতিরিক্ত সচিব ফয়জুর রহমানকে ফোকাল পয়েন্ট করে কন্ট্রোল রুম (০১৭২৭২১২১৬৯) খোলা হয়েছে। কন্ট্রোল রুমের মূল উদ্দেশ্য হলো ২৪ ঘণ্টা সারাদেশের খোঁজ-খবর রাখা।

এসময় ত্রাণ সচিব শাহ কামাল জানান, ডিজি অফিসে আরেকটি কন্ট্রোল রুম (০১৭১২০০০৬৩) খোলা হয়েছে। এছাড়া জেলায় জেলায়ও কন্ট্রোল রুম কাজ করবে।

#channelionline

Facebook Comments

You may also like

বীরগঞ্জে ইট ভাটা মালিকের তান্ডবে নারীসহ ৭ জন হাসপাতালে

আবাদি জমির মাটি কেটে ইট ভাটায় নিয়ে যাওয়ার