বৈকালী রোদে পশ্চিম আকাশ উদ্ভাসিত
অভাগা কৃষকের দীর্ঘশ্বাসে আকাশ বাতাস প্রতিধ্বনিত।
গোধুলী আকাশের নিচে সবুজ ধানের ক্ষেত,
তারই পাশে বেড়ে উঠেছে মৌসুমি ফসলের সমায়েত।

ক্ষেতের আলপথ ধরে ফিরে আসছে
গ্রামীণ কৃষকের শুকনো মলিন মুখে,
কৃষাণী বধুর অধরপ্রান্ত কাঁপছে ভীষণ দুঃখে।

ওরা কঠিন মাটির বুকে জন্মায় সোনার ফসল,
কিন্তু জগৎ জোড়া ঋণভার আর দারিদ্রতা তাদের জীবন করেছে অচল।
কৃষকের বুকের রক্তে জন্মানো সোনার ক্ষেত খালি হয়ে যায়,
পড়ে থাকে শুধু মানি।

তাদের সোনার ফসল চলে যায় অর্থশালী ধুরন্ধরদের ঘরে,
তবুও তার মাটির মায়ায় এমনি করে বেঁচে থাকে বছরের পর বছর ধরে।
কিন্তু কোনদিন পায় না তাদের কষ্টের সমাধান,
কারো কাছে মিলেনাকো জবাব,ঘটেনা তাদের দুঃখের অবসান।
আজ সোনার মাটি উর্বর ধরণী করছে উপহাস,
সংসারে দু’দিনে চলার পথে কৃষকের এ নিদারুন পরিহাস।

লিখেছেনঃ জলস্পর্শী তটিনী

Facebook Comments

You may also like

এমপি প্রার্থী নিজেই করছেন মাইকিং সঙ্গী অটো চালক!

বিশেষ সংবাদদাতাঃ  আসন্ন একাদশ জাতীয় সংসদ নির্বাচনে কুড়িগ্রাম-১